Search
Close this search box.

খাগড়াছড়িতে জেএমবি’র শীর্ষ নেতা রহিমসহ তিনজনকে ১০ বছর সশ্রম কারাদন্ড

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print

খাগড়াছড়ি জেলা প্রতিনিধি:

khagrachari-picture-17-10-2016
.

নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ(জেএমবি’র) চট্টগ্রাম অঞ্চলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড আব্দুর রহিম ওরফে জাহিদসহ তিনজনকে ১০ বছর করে কারাদন্ড ও দুই হাজার টাকা করে অর্থদন্ড এবং অনাদায়ে আরো দুই বছর করে কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।

আজ সোমবার খাগড়াছড়ি জেলা ও দায়রা জজ এবং বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিচারক মো: ইনামুল হক ভূঁঞা সন্ত্রাস দমন আইনে দায়ের করা মামলায় এ কারাদন্ড দেন।

সাজাপ্রাপ্ত অপর আসামীরা হচ্ছে,মোঃ দেলোয়ার হোসেন ওরফে সজিব,মোঃ ইউনুছ আলী ওরফে ইউনুছ।বিষয়টি নিশ্চিত করেছে খাগড়াছড়ি খাগড়াছড়ি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে পিপি এডভোকেট বিধান কানুনগো।

এর আগে গত ২৪ সেপ্টেম্বর একই আদালতে দমন আইনে দায়ের করা অপর একটি মামলায় সাত বছর করে কারাদন্ড ও দুই হাজার টাকা করে অর্থদন্ড এবং অনাদয়ে আরো দুই বছর করে কারাদন্ড দেওয়া হয়।

জেএমবি সদস্যদের আদালতে হাজির করাকে কেন্দ্র করে আদালত পাড়ায় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়।

উল্লেখ,২০০৯ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর ভোর রাতে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার শান্তিপুর এলাকায় অভিযান চট্টগ্রাম অঞ্চলের জেএমবির সেকেন্ড-ইন-কমান্ড আব্দুর রহিম ওরফে জাহিদ হোসেন,মোঃ দেলোয়ার হোসেন ওরফে সজিব,মোঃ ইউনুছ আলী ওরফে ইউনুছ, সামছু মিয়াকে আটক করে। এ ঘটনায় বিস্ফোরক ও সন্ত্রাস দমন আইনে পৃথক দু’টি মামলা হয়।পরবর্তীতে পাচজনকে আসামী করে চার্জশীট দেওয়া হয়।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা