Search
Close this search box.

ফটিকছড়ির ১৪ ইউপি চেয়ারম্যানের শপথ সম্পন্ন

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print
0134450
ফটিকছড়ির ইউপি চেয়ারম্যানরদের শপথ করাচ্ছেন জেলা প্রশাসক মো.মেজবাহ উদ্দিন।

ফটিকছড়ি (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ১৪ ইউপি চেয়ারম্যান শপথ গ্রহণ করেছেন। চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মো. মেজবাহ উদ্দিন গতকাল বুধবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে তাদের শপথ পাঠ করান।

এসময় ফটিকছড়ির ইউএনও মো. নজরুল ইসলাম, ফটিকছড়ির উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল আলম বাবু, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ সভাুপতি আফতাব উদ্দিন চৌধুরী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেবুন্নাহার মুক্তা, ফটিকছড়ি পৌর মেয়র মো. ইছমাইল হোসেন, আওয়ামীলীগ নেত্রী খাদিজাতুল আনোয়ার সনি প্রমুখ।

শপথ নেওয়া চেয়ারম্যানরা হলেন বাগান বাজার ইউনিয়নে রুস্তম আলী, দাতমারা ইউনিয়নে জানে আলম, নারায়ণহাট ইউনিয়নে মো. হারুনুর রশীদ, হারুয়ালছড়ি ইউনিয়নে ইকবাল হোসেন চৌধুরী, পাইন্দং ইউনিয়নে একেএম সরোয়ার হোসেন স্বপন, কাঞ্চন নগর ইউনিয়নে রশিদ উদ্দিন চৌধুরী কাতেব, সুন্দরপুর ইউনিয়নে এম শাহ নেওয়াজ চৌধুরী, লেলাং ইউনিয়নে সরোয়ার উদ্দিন চৌধুরী শাহীন, রোসাংগীরি ইউনিয়নে সোয়েব আল সালেহীন, বখতপুর ইউনিয়নে এস এম সোলাইমান, ধর্মপুর ইউনিয়নে মো. আবদুল কাইয়ুম, সমিতিরহাট ইউনিয়নে হারুন রশীদ কালু, জাফতনগর ইউনিয়নে আবদুল হালিম, আবদুল্লাপুর ইউনিয়নে মো. হোসেন আলী তালুকদার।

উল্লেখ্য, ফটিকছড়ির ১৪ ইউপি নির্বাচন গত ২৩ এপ্রিল সম্পন্ন হয়। এতে আওয়ামীলীগের ১১জন, বিএনপির ১জন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী ২জন নির্বাচিত হয়।

এদিকে গত মঙ্গলবার ফটিকছড়ি উপজেলা শফীকুন নূর মওলা বীর প্রতীক মিলনায়তনে ইউএন ও মো. নজরুল ইসলাম ১১ ইউপির ১৩১ সদস্যদের শপথ পাঠ করান। বাকি ৩৭ সদস্যদের যে কোন সময় শপথ পাঠ করানো হবে।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা