Search
Close this search box.

চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষে আহত ৫

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print
ctg-1pic
চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংর্ঘষের ফাইল ছবি।

অন্যায় ভাবে ছাত্রভর্তির চেষ্টাকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম সরকারি কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংর্ঘষ হয়েছে। ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত পাঁচজন ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছেন।

আজ শনিবার বেলা ৩টার দিকে নগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সস্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাসির গ্রুপ এবং সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী গ্রুপের মধ্যে এ ঘটনা ঘটেছে।

আহতদের ৪ জনের নাম জানা গেছে, তারা হলেন- ইউসুফ কবির (২৩), বিশ্বজিৎ (২১), সোহেল (২২) ও ফোরকান (২১), কায়সার হামিদ (২০)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী জানান, দুপুরেরর দিকে চট্টগ্রাম কলেজ দশ শ্রেণীতে ভর্তি হতে আসা শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানাচ্ছিলেন ছাত্রলীগের মহিউদ্দিন গ্রুপ।

চট্টগ্রাম-কলেজে
ফাইল ছবি: চট্টগ্রাম কলেজ গেইট।

পরে ছাত্রলীগের অপর একটি অংশ নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিনের নামে শ্লোগান দিয়ে চট্টগ্রাম কলেজের ক্যাম্পাসে ঢুকে। এসময় পূর্বের থেকে অবস্থানকারীরা কোন নেতার নামে শ্লোগান দেয়া যাবে না বলায় দুই গ্রুপের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এরপর ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার এবং মারামারি শুরু হয়। এতে ৫ জন আহত। আহতরা সবাই মহিউদ্দিন গ্রুপের বলে জানাগেছে।

তবে একাধিক সুত্রে জানাগেছে, মূলত অন্যায় ভাবে চাপা সৃষ্টি করে ছাত্রলীগের একটি গ্রুপ কলেজে ছাত্র ভর্তির চেষ্টাকে কেন্দ্র করে দু গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষ হয়েছে।

আহতদের মধ্যে মাথায় জখম হওয়ায় ইউসুফ কবিরকে নগরীর একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুল করিম।

তিনি বলেন, বহিরাগত কয়েকজন যুবক হঠাৎ করে মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে। আমরা নেতার নামে শ্লোগান দেয়া বন্ধ করতে বললে তারা আমাদের উপর হামলা চালায়। এতে কলেজের কয়েকজন আহত হয়েছে।

এদিকে মেয়র আ জ ম নাসির সমর্থিত গ্রুপের এক নেতা নাম গোপন রাখার শর্তে জানান- মহিউদ্দিন চৌধুরী গ্রুপের নেতারা ট্রান্সক্রিপ্ট ছাড়া একাদশ শ্রেনীর বিজ্ঞান বিভাগে কিছু ছাত্র ভর্তি করানোর জন্য ভর্তি কমিটিকে চাপ দিচ্ছিল। পরে কমিটি তাদের সামাল দিতে না পেরে অধ্যক্ষের কক্ষে নিয়ে আসে। ঐ অবস্থা তারা কলেজ অধ্যক্ষের উপরও চাপ প্রয়োগ করতে থাকে। এক পর্যায়ে আমাদের নেতা-কর্মীরা এই অন্যায় আবদারের প্রতিবাদ করে। তখন তারা আমাদের উপর হামলে পড়ে। তারপর সংঘর্ষ বেঁধে যায়। তবে আমরা নগর পিতা আ জ ম নাসির উদ্দিনের নেতৃত্বে কলেজের শিক্ষার পরিবেশ রক্ষায় বদ্ধ পরিকর। চট্টগ্রাম কলেজ মেধাবীদের কলেজ। এখানে দলীয় কোটায় অযোগ্যদের ভর্তি করিয়ে আমরা কলেজের সুনাম ক্ষুন্ন হতে দিতে পারিনা।

সিএমপি’র চকবাজার থানার খারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজ আহমেদ বলেন, বহিরাগতদের সাথে ছাত্রলীগের মারামারি হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা