Search
Close this search box.

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে পাঠক.নিউজ

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print

তথ্য প্রযুক্তি বিকাশের সাথে সাথে পরিবর্তন হচ্ছে মানুষের জীবন যাত্রার মান। এই আধুনিক জীবন যাত্রায় ফেইসবুক ক্রমেই এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হলেও এটি শুধু মাত্র এর মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই, পাওয়া যাচ্ছে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন সংবাদেরও খোঁজ। ফেসবুকের নিউজফিডে প্রতিদিন ভেসে আসে হাজারো খবরের শিরোনাম বা লিংক। এই শিরোনাম থেকে খবরটি পড়ার জন্য ক্লিক করলেই ফেসবুক থেকে বেরিয়ে চলে যেতে হয় নির্দিষ্ট কোনো ওয়েবসাইটে। আর মোবাইল ফোনের পাঠকমাত্রই জানেন, এটা কতটা সময়সাপেক্ষ! অপেক্ষার পালা যেন আর ফুরোতে চায় না। পাঠকের এই চিরাচরিত তিক্ত অভিজ্ঞতা বদলে দিতে ফেসবুক নিয়ে এসেছে “তাৎক্ষণিক প্রবন্ধ” (Instant Article) নামে এক জাদুকরি চমক। এখন খবরের শিরোনাম বা লিংকে শুধু একটা ক্লিক, ব্যস! বিদ্যুৎ গতিতে ফেসবুকেই পেয়ে যাবেন খবরটি। ফেসবুকের এই নতুন ফিচারে যুক্ত হয়েছে পাঠক নিউজ।

photo-1465376950সারাবিশ্বের বড় বড় সংবাদমাধ্যম গুলো এরই মধ্যে ফেসবুকের “তাৎক্ষণিক প্রবন্ধ (Instant Article) ফিচারটির সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম দ্য নিউইয়র্ক টাইমস, বাজফিড, ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক ছিল তালিকায় প্রথম। পরে আরো নামীদামি সংবাদমাধ্যমও ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছে। ওয়াশিংটন পোস্ট, হাফিংটন পোস্ট, দ্য ইনডিপেনডেন্ট, ইন্ডিয়া টুডের মতো জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমও পাঠকের খবর পড়ার অভিজ্ঞতাকে স্বাচ্ছন্দ্যময় করতে তাৎক্ষণিক প্রবন্ধের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছে।

গত ১২ এপ্রিল ফেসবুক কতৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে “তাৎক্ষণিক প্রবন্ধ” (Instant Article) সবার জন্য উন্মুক্ত করে। গত ১০ জুন ২০১৬ ফেইসবুকে আনুষ্ঠানিক ভাবে অন্তভূক্ত হয় পাঠক.নিউজ এর আগে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম অন্তভূক্ত হয় এনটিভি অনলাইন, বাংলাশের দ্বিতীয় সংবাদ মাধ্যম হিসেবে পাঠক.নিউজ অন্তভূক্ত হলো। বিশ্বজুড়ে প্রযুক্তিগত যে উদ্ভাবন হচ্ছে, সেই প্রযুক্তির সহযাত্রী হয়ে দ্রুততম সময়ে প্রয়োজনীয় সংবাদটি পাঠককে জানাতেই পাঠক.নিউজ এর এই প্রয়াস।

এই নতুন সংযোজন বা ফিচারটি মূলত মোবাইল ফোন থেকে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতা বদলে দেওয়ার জন্যই। যেকোনো সময়ের চেয়ে দ্রুততম সময়ে (ফেসবুক বলছে, বিদ্যুৎগতিতে) একজন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী তাঁর পছন্দসই খবরটি পড়তে পারবেন ফেসবুকে থেকেই। নাম শুনেই বুঝতে পারছেন, এই ফিচারটির মূল বৈশিষ্ট্য হচ্ছে ‘তাৎক্ষণিকতা’। দেখলেন আর ক্লিক করলেন, ব্যস। তাতেই কাজ যা হওয়ার হয়ে যাবে। খবর বা কোনো কনটেন্ট লোড হওয়ার যে প্রতীক্ষা আপনাকে করতে হতো, তা একেবারেই ভুলে যাবেন আপনি।

Instant-Articles-—-Hero1-1280x640তাৎক্ষণিক প্রবন্ধ বা ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল সম্বন্ধে আরো খোলাসা করে বলা যায়, ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এক ধরনের অ্যাপও। ধরুন, আপনি মোবাইল থেকে ফেসবুক ব্যবহার করছেন। এমন সময় আপনার নিউজফিডে একটি সংবাদের লিংক দেখলেন, তারপর ক্লিক করলেন। তখন সেই সংবাদের সাইটটি ধীরে ধীরে আপনার মোবাইলে লোড হবে আর তারপর আপনি পুরো সংবাদটি দেখতে পাবেন—এমনটাই তো হয়ে থাকে, তাই না! ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের জাদু সেখানেই। আগে কেমন করে কী হতো, ভুলে যান। ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলে সংযুক্ত কোনো নিউজ লিংকে ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গে সেটি আপনার মোবাইলে চলে আসবে, কারণ এটি ১০ গুণ দ্রুত কাজ করে। আর তার থেকেও বড় কথা, এটি প্রথমত সেই সংবাদটি চোখের নিমেষে আপনার মোবাইলে এনে হাজির করে, ওই সাইটটিকে নয়।

ব্যবহারকারীরা এখন তৎক্ষণাৎ হাই-রেজল্যুশনে যেকোনো ছবি জুম করতে পারবেন, স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলতে থাকা ভিডিও দেখতে পারবেন কোনো বাধা ছাড়াই। আপনার মনেই হবে না যে এটি ইন্টারনেট থেকে লোড হয়েছে, বরং মনে হবে এটি যেন কোনো সেইভ করে রাখা ফাইল, আপনি ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গেই খুলে গেল! কোনো কনটেন্ট ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলের সঙ্গে সম্পৃক্ত কি না, সেটা বোঝারও সহজ উপায় আছে। যেকোনো শেয়ার করা লিংকের ডানপাশে যখন একটি বিদ্যুতের মতো (থান্ডারবোল্ট) চিহ্ন দেখতে পাবেন, বুঝে নেবেন সেটি ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেলই বটে!

অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক
facebook-audienceফেসবুকে বিজ্ঞাপনের বিষয়টি অনেকেই মোটামুটি জানেন। প্রযুক্তি ব্যবহারকারীরা ভালোভাবেই জানেন, বিজ্ঞাপন দেওয়ার ক্ষেত্র হিসেবে ফেসবুক কতটা শক্তিশালী একটি প্ল্যাটফর্ম। সারা দুনিয়ার অজস্র মানুষের দৈনন্দিন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ যেহেতু ফেসবুক, সে কারণে সেটি তো বিজ্ঞাপনদাতাদের জন্য পরম লোভনীয় এবং আরাধ্য স্থান হবেই। এ কারণেই সারা বিশ্ব থেকে প্রায় ৩০ লাখ বিজ্ঞাপনদাতা শুধু ফেসবুকেই বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন। ফেসবুক এই বিজ্ঞাপন থেকে আসা অর্থ উপার্জনের সুযোগ দিচ্ছে সংবাদমাধ্যমগুলোকেও।

ফেসবুক এখানেও নিয়ে এসেছে নতুন সংযোজন—ফেসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক। এটি একটি আন্তর্জাতিক বিজ্ঞাপনী নেটওয়ার্ক। পাঠক.নিউজ শুরু থেকেই এই অডিয়েন্স নেটওয়ার্কে যুক্ত হয়েছে।AAEAAQAAAAAAAAOBAAAAJGIyZDAzODk5LWYwZmItNGU3YS04ODgxLWNmODY2MDI3MDliYw

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা