Search
Close this search box.

নিরাপত্তাজনিত কারণে ব্রিটিশ কাউন্সিলের সব অফিস বন্ধ ঘোষণা

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print
British-Council
বাংলাদেশে সাময়িকভাবে ব্রিটিশ কাউন্সিলের সব অফিস বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বাংলাদেশে সাময়িকভাবে ব্রিটিশ কাউন্সিলের সব অফিস বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। নিরাপত্তাজনিত কারণে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বাংলাদেশ ব্রিটিশ কাউন্সিলের পেজে মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ করা হয়। তবে বুধবার (২৭ জুলাই) ‘বাংলাদেশে সাময়িকভাবে বন্ধ ব্রিটিশ কাউন্সিল’ এই শিরোনামে একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে প্রতিষ্ঠানটি।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, নিরাপত্তা ব্যবস্থা অনূকুলে থাকা সাপেক্ষে শীঘ্রই আবার সবরকম কার্যক্রম চালু করা হবে।

71133790
ব্রিটিশ কাউন্সিল ঢাকা অফিস।

ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের পরিচালক বারবারা উইকহ্যাম বলেন, আমরা লক্ষ্য করেছি, সাধারণ জনগণ নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন এবং তাদের মধ্যে আতঙ্ক দিন দিন বাড়ছে। ব্রিটিশ কাউন্সিলে যারা কাজ করেন এবং এখান থেকে যারা সেবা গ্রহণ করে থাকেন তাদের নিরাপত্তার বিষয়টি আমাদের কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। নিরাপত্তা নিশ্চিৎ করতেই মূলত আমরা সাময়িকভাবে বাংলাদেশে ব্রিটিশ কাউন্সিলের সব অফিস বন্ধ ঘোষণা করেছি।

সাময়িকভাবে বন্ধ থাকা অবস্থায় আমাদের গ্রাহকরা যদি কোন ধরনের তথ্য জানতে চায় তবে তারা [email protected] -এ ইমেইল করে জানতে পারবেন।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা