Search
Close this search box.

হালদা নদী রক্ষা ও দুষনমুক্তের দাবীতে মানববন্ধন

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print
????????????????????????????????????
হালদা নদী দূষণ ও দখলের হাত থেকে রক্ষা করার দাবিতে শনিবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে সচেতন নাগরিক সমাজ।

দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদী দূষণ ও দখলের হাত থেকে রক্ষা করার দাবি জানিয়ে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে সচেতন নাগরিক সমাজ। শনিবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব প্রাঙ্গনে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশ থেকে অবিলম্বে হালদা দূষণ বন্ধের দাবি জানানো হয়।

সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে বেসরকারি ইস্ট ডেল্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মু. সিকান্দার খান বলেন, বিশ্বে যেসব প্রাকৃতিক প্রাচুর্য্যরে কারণে বাংলাদেশ পরিচিত তার মধ্যে অন্যতম হালদা নদী। হালদা নদী কার্প জাতীয় মাছের সবচেয়ে বড় প্রাকৃতিক প্রজনন ক্ষেত্র। দূষণের কারণে এখন নদীটি মৃতপ্রায়। এর আশেপাশের লোকালয় দূষণে বিপর্যস্ত। হালদাকে বাঁচানো না গেলে বিপন্ন হবে চট্টগ্রামে বৃহৎ জনগোষ্ঠীর জীবন।

হালদা গবেষক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মনজুরুল কিবরিয়া বলেন, হালদা নদী চট্টগ্রামবাসীর সুপেয় পানির প্রধান উৎস। নদী যেভাবে দূষিত হচ্ছে তাতে পানি শোধন করেও আর নগরীতে সরবরাহ করা সম্ভব হবে না। তখন নগরবাসী চরম পানি সংকটে পড়বে। যেসব কারখানা হালদা দূষণের জন্য দায়ী তাদের বিরুদ্ধে কোনো জোরালো পদক্ষেপ কখনোই নেয়া হয়নি।

হাজী মুহাম্মদ মহসীন কলেজের অধ্যাপক পরিবেশবিদ ইদ্রিস আলী বলেন, হালদার মত সম্পদশালী নদী বিশ্বে বিরল। কিন্তু অবহেলা, অযতেœ আর সর্বগ্রাসী মনোভাবের কারণে আমরা হালদাকে হারাতে বসেছি। দূষণের কারণে হালদা তীরের মানুষের জীবন বিপন্ন। জনপদ শূন্য করে কার লাভ? নদী ধ্বংস করে কে মুনাফা করতে চায়? হালদা না বাঁচলে চট্টগ্রামও মুমূর্ষ হয়ে যাবে। হালদা রক্ষায় কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

সচেতন নাগরিক সমাজের সমন্বয়ক আমিনুল ইসলাম মুন্না বলেন, আমরা হালদা পাড়ের মানুষ। নদীকে কিভাবে তিলে তিলে মারা হচ্ছে তা আমরা জানি। হালদা বিপন্ন হলে নগরবাসীও বিপদে পড়বে। চট্টগ্রামের এই অনন্য ঐতিহ্য রক্ষায় ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

প্রকৌশলী পলাশ বড়–য়ার সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জসিমউদ্দিন শাহ, হালদা রক্ষা কমিটির মোহাম্মদ আলী, চ্যানেল আইয়ের ব্যুরো প্রধান চৌধুরী ফরিদ, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের সরওয়ার আমিন বাবু, রাশেদ খান মেনন, নাজিমুদ্দিন মিয়াজী, জাহাঙ্গীর সুমন, সৌমেন বড়–য়া, অমিত চক্রবর্তী, লিটন, মামুন,ও এস এম মুজিব, চৌধুরী জাহদি প্রমুখ।

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে অংশ নেয় হালদা রক্ষা কমিটি, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন, হাটহাজারী ফেডারেশন, রেসকোর্স, হালদা ডিম সংগ্রহকারী সমিতি, আহমদিয়া পাড়া জনকল্যাণ সংস্থা, রাউজান কবি নজরুল সাহিত্য পরিষদ, অতীশ দীপঙ্কর সোসাইটি ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন।

হালদার ভাঙ্গন প্রতিরোধ, মা মাছ রক্ষা, রাবার ড্যাম ও প্যারালাল খাল নির্মাণ বন্ধ, উজানের পানি প্রত্যাহার বন্ধ ও উজানে তামাক চাষ নিষিদ্ধের দাবি জানানো হয় মানববন্ধন চলাকালে অনুষ্ঠিত সমাবেশ থেকে।
প্রায় দুই বছর ধরে নগরীর বায়েজিদ থেকে কুলগাঁও পর্যন্ত এলাকার শিল্প কারখানা এবং আবাসিক বর্জ্য দুই ইউনিয়নের সাতটি খাল বেয়ে ছড়িয়ে পড়েছে পুরো এলাকায়। এরমধ্যে অধিকাংশ খালের গন্তব্য দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজননকেন্দ্র হালদা নদী।

দূষণের শিকার খালগুলো হল- শিকারপুর ইউনিয়নের কুয়াইশ, বাথুয়া, হামিদিয়া ও কৃষ্ণখালি এবং মাদার্শা ইউনিয়নের খন্দকিয়া, কাটাখালি ও মাদারি। দূষণের কারণে অনাবাদি হয়ে পড়ছে উত্তর মার্দাশা. দক্ষিণ মার্দাশা, চিকনদন্ডি, শিকারপুর ও বুড়িশ্চয় ইনিয়নসহ আশেপাশের গ্রামের চাষের জমি।

সারাদেশ

২৫ জুন ২০২৪

কুমিল্লায় কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে কারামুক্ত হয়েছেন নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া। আজ সোমবার (২৪

সারাদেশ

২৫ জুন ২০২৪

ময়মনসিংহ ও নেত্রকোণা জেলায় বাসা-বাড়িতে গ্যাস সরবরাহ অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে। মঙ্গলবার (২৫ জুন) সকাল থেকে গ্যাস পাচ্ছে

জাতীয়

২৫ জুন ২০২৪

পুরান ঢাকার হাকিমপুরী জর্দার ব্যবসায়ী মো. কাউছ মিয়া (৯৪) মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। সোমবার (২৪ জুন)