Search
Close this search box.

ঈদে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা: মনিটরিং সেল গঠন

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print
14233492_1785667691648758_102112779_o
জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে গরু ব্যবসায়ী, পরিবহন মালিক শ্রমিক সমিতিসহ বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গের সাথে অনুষ্ঠিত জেলা পুলিশের বৈঠক।

ঈদুল আযহা উপলক্ষে ৫ ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করেছে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ। এছাড়া পশুরহাট এবং মহাসড়কে কোন ধরনের চাঁদাবাজি বরদাস্ত করা হবেনা। শনিবার সকাল ১১ টায় নগরীর ২নং গেইটস্থ জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাবিবুর রহমান এসব কথা বলেন।

আসন্ন ঈদুল আযহা উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন উপজেলার গরু ব্যবসায়ী, পরিবহন মালিক শ্রমিক সমিতিসহ প্রশাসনের বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়ের আয়োজন করে জেলা পুলিশ।

মতবিনিময় সভায় পরিবহন মালিক শ্রমিক নেতারা বলেন ঈদুল আযহা উপলক্ষে বিভিন্ন কোরবানির পশুর হাট ও মহাসড়কে নানা ধরনের চাঁদাবাজির শিকার হন ব্যবসায়ীরা। এ ছাড়া চলে গাড়ী রিকুইজিশনের নামে পুলিশের বাণিজ্য। মহাসড়কে চলাচল গাড়ী গুলোর কাগজপত্র পরীক্ষার নামে চলে হাইওয়ে পুলিশের হয়রানি। এক হাজার টাকা না দিলে গাড়ী গুলোকে ৫ হাজার টাকার মামলা দেয়া হয়।

সমিতির নেতারা বলেন দক্ষিন এবং উত্তর চট্টগ্রামের বেশ কয়েকটি স্থানে সড়কের উপর গরুর হাট বসে এতে করে যানজটের সৃস্টি হয়। এ ছাড়া সড়কে চলাচলকারী লক্কর ঝক্কর গাড়ী যত্রতত্র বিকল হয়ে রাস্তায় যানজটের সৃস্টি করে। তাঁরা পুলিশের এসব হয়রানি এবং মহাসড়কে মেয়াদোত্তীর্ণ এসব গাড়ী চলাচল বন্ধের আহবান জানান।

পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতাদের এসব অভিযোগের ভিত্তিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাবিবুর রহমান বলেন, মহাসড়ক এবং গরু বাজারে কোন ধরনের চাঁদাবাজি বরদাস্ত করা হবেনা। এ ধরনের সুনিদির্ষ্ট অভিযোগ পেলে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তাৎক্ষনিক বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তিনি বলেন এবারে ঈদুল আযহা উপলক্ষে ৫ নিরাপত্তা স্তরেরব্যবস্থা গ্রহন করেছে জেলা পুলিশ।

এগুলো হচ্চে গরুর হাটের নিরাপত্তা, গরুবোঝাই গাড়ী নিদির্ষ্ট গন্তব্যে পৌছাতে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা, সীমান্ত এলাকা দিয়ে চামড়া পাচার রোধ, ঈদ জামায়াতের নিরাপত্তা এবং ঈদ উপলক্ষে আগত পর্যটকদের নির্বিঘ্নে যাতায়াতে নিরাপত্তা প্রদান।

তিনি বলেন এ জন্য একটি মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে।  এছাড়া এসব নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি ট্রাফিক পুলিশ,গোয়েন্দা পুলিশ এবং সাদা পোশাকে পুলিশ মাঠে থাকবে।

মতবিনিময় সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার( বিশেস শাখা) রেজাউল মাসুদ, সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ওয়াহিদুল হক চৌধুরী,সহকারী পুলিশ সুপার মসিহ উদ দৌলা রেজা,মফিজুর রহমান,জাহাঙ্গীর আলম,মালিক ও শ্রমিক পরিবহন নেতা যথাক্রমে গোলাম নবী,আবদুচ ছবুর, খোরশেদ আলম,আাসাদুল্লাহ চৌধুরী,ট্রাফিক পরিদর্শক নজরুল ইসলামসহ বিভিন্ন তানার অফিসার ইনচার্জগন উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা