Search
Close this search box.

কর্মকর্তাদের সঙ্গে রাত না কাটালে দলে জায়গা পাওয়া না

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print

ফেডারেশনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে রাত না কাটালে দলে জায়গা পাওয়া যেত না! শুধু ফেডারেশন নয়, টিম ম্যানেজমেন্টের লোকদের মনোরঞ্জন করতে না পারলে খেলার সুযোগ পাওয়া যেত না! ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করে কর্মকর্তাদের কাছে জিম্মি ভারতীয় নারী ফুটবল দল।

এমনই অভিযোগ করেছেন ভারতীয় ফুটবল দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সোনা চৌধুরী।

১৯৯৫ সালে জাতীয় নারী দলে অভিষেক হয় সোনা চৌধুরীর। পরের বছর দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পান তিনি। তবে মাত্র তিন বছরেই শেষ হয় তার ক্যারিয়ার। পায়ের চোটের কারণে মাঠে ফিরতে পারেননি আর।

Sona1463132826সোনা চৌধুরী তার `গেম ইন গেম` বইয়ে এসব অভিযোগ করেছেন। তিনি লিখেছেন, শুধু প্রতিভা দিয়ে ভারতীয় দলে সুযোগ পাওয়া যায় না। দলে সুযোগ পেতে হলে টিম ম্যানেজমেন্টের লোকদের মনোরঞ্জন করতে হয়। তাদের সঙ্গে রাত কাটাতে হয়। জাতীয় নারী ফুটবল দলে জায়গা পেতে হলে কর্মকর্তাদের শয্যাসঙ্গিনী হতে হয়।

দেশের বাইরে খেলতে গেলে কোচ ও সচিব নারী খেলোয়াড়দের সঙ্গে একই কক্ষে থাকেন। প্রতি রাতে কোনো না কোনো খেলোয়াড়ের সঙ্গে রাত কাটান তারা। কেউ রাজি না হলে দিনের পর দিন সাইড বেঞ্চে বসিয়ে রাখা কিংবা দল থেকে বের করে দেওয়া হতো।

এদিকে সোনা চৌধুরীর তথ্যকে ‘বানোয়াট’ বলে দাবি করেছে ভারতের ফুটবল ফেডারেশন। কর্মকর্তাদের দাবি, কোনো প্রাক্তন ফুটবলার ও কর্মকর্তা সোনা চৌধুরীকে চিনতে পারছেন না। পরিসংখ্যানেও নাম নেই।

তবে হরিয়ানার মেয়ে সোনা চৌধুরী বলছেন, কোনো মিথ্যা ও বানোয়াট কথা বইয়ে প্রকাশ করেননি তিনি। তার ভাষ্য, ‘বইটি ৯০ শতাংশ তথ্যনির্ভর, বাকিটা গল্প।’

 

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা