Search
Close this search box.

আ’লীগের সম্মেলনে অর্ধ লাখ লোকের জন্য ৩ বেলা খাবারের ব্যবস্থা!

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print
image-2304
.

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২০তম সম্মেলনে বিদেশি অতিথি, রাজনৈতিক কর্মী ও অন্যান্য অতিথিসহ ৫০ হাজার লোকের খাবারের ব্যবস্থা থাকবে। সম্মেলনে উদ্বোধনী দিন (২২ অক্টোবর) দুপুর ও রাত এবং সম্মেলনের সমাপনী দিন (২৩ অক্টোবর) দুপুর বেলাসহ মোট তিনবেলা খাওয়ার ব্যবস্থা থাকবে।

আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে সোমবার (১৭ অক্টোবর) সম্মেলনের খাদ্য উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, এই আয়োজনে কারো জন্য পৃথক কোনো খাদ্যের ব্যবস্থা থাকবে না। বিদেশিদের জন্যও বাড়তি কোনো খাদ্য সরবরাহ করা হবে না বলে জানান আওয়ামী লীগের এই নেতা।

মায়া জানান, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর-দক্ষিণ বিভাগের দুটি বুথ থাকবে এবং প্রতিটি বিভাগের জন্য আলাদা আলাদা খাদ্য সরবরাহ থাকবে। বিদেশি প্রতিনিধি ও অন্যান্য অতিথিসহ সম্মেলনে মোট ১৫টি বুথ থাকবে। প্রতিটি বুথে ২০ জন ফোর্স, ১০০ জন স্বেচ্ছাসেবক ও দুজন করে কেন্দ্রীয় নেতা থাকবেন।

al
.

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ সম্মেলনে খাদ্য সরবরাহ নিয়ে কোনো বিশৃঙ্খলা, সংকট ও অসঙ্গতি যেন না থাকে, আমরা সেভাবেই কাজ করছি।

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া জানান, সম্মেলনের শেষ প্রস্তুতি সভা হবে ২০ অক্টোবর। সময় পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে যদি আমাদের পরিকল্পনা পরিবর্তন করার প্রয়োজন হয় করব।

এ সময় খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদসহ খাদ্য উপকমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা