Search
Close this search box.

ভুল বিচারে ১৩ বছর সাজা খাটলেন জবেদ আলী

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print

HC1খালাসের রায়ের পরও সাতক্ষীরার জবেদ আলীর ১৩ বছর সাজা খাটার ঘটনায় তাকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ কেন দেওয়া হবে না- এই মর্মে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। মানবাধিকার সংগঠন চিলড্রেন চ্যারিটি বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের করা এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার বিচারপতি মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মোহম্মদ ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এই রুল জারি করেন।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, আইজি প্রিজন্স, সাতক্ষীরার তৎকালীন অতিরিক্ত দায়রা জজ তাপস কুমার, হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার ও জেল সুপারকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন চিলড্রেন চ্যারিটি বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের সভাপতি ব্যারিস্টার আবদুল হালিম।

পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘একজন অতিরিক্ত দায়রা জজের ভুলের কারণে জবেদ আলীকে ১৩ বছরের সাজা ভোগ করতে হয়েছে। সভ্য সমাজে এই আচরণ অকল্পনীয়। তাই আমরা এই বিষয়ে আদালতের কাছে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা চেয়েছি। পরে হাইকোর্ট জবেদ আলীকে ক্ষতিপূরণ প্রদানে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না-এই মর্মে রুল জারি করেন।’

জবেদ আলীকে নিয়ে গত ২ মার্চ কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এসব প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, নিজ মেয়েকে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগে ২০০১ সালের ১ মার্চ বিচারিক আদালত জবেদ আলীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। পরবর্তীকালে হাইকোর্ট নিম্ন আদালতের রায় বাতিল করে তাকে বেকসুর খালস দেন।

হাইকোর্টের এই রায়ের অনুলিপি সাতক্ষীরার অতিরিক্ত দায়রা জজ-৩ আদালতের বিচারক তাপস কুমার দে’র নিকট পৌঁছায়। কিন্তু তিনি খালাস আদেশ জেল কর্তৃপক্ষের কাছে না পাঠিয়ে আদালতের রেকর্ড রুমে সংরক্ষণের নির্দেশ দেন। তার এই ভুলের কারণে ১৩ বছর বিনা বিচারে জেলে থাকতে হয় জবেদ আলীকে।

এ বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পরদিন সাতক্ষীরার জেলা দায়রা জজ আদালতে বিষয়টি উপস্থাপন করা হলে তার কারামুক্তির নির্দেশ দেন।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি সরকার বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) সাংবাদিকদের প্রশ্নে উত্তরে তিনি