Search
Close this search box.

এমপি আনার হত্যার ছবি প্রকাশ, জানা গেলো চাঞ্চল্যকর তথ্য

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print

কলকাতার নিউটাউনের সঞ্জিবা গার্ডেনের ফ্লাটটিতে ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীমকে হত্যার ছবি পেয়েছে যমুনা নিউজ। একইসঙ্গে আনারের সঙ্গে কী ঘটেছিল, এ সংক্রান্ত চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে।

এমপি আনারকে হত্যার ছবি। সংগৃহীত ছবি
হাতে আসা একটি ভিডিওতে কসাই জিহাদকে স্বীকারোক্তি দিতে দেখা গেছে। এতে তিনি জানান, বালিশ চাপা দিয়ে আনারকে হত্যা করা হয়। এরপর ওই ফ্ল্যাটের বাথরুমে তার মরদেহ টুকরো টুকরো ফ্ল্যাশ করা হয়। অজ্ঞান করার রাসায়নিক ক্লোরোফর্ম দিয়ে এমপি আনারকে অচেতন করে বালিশ চাপা দিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

হত্যা করেই থামেনি খুনিরা। মৃত আনারকে চেয়ারে বসিয়ে তার হাত ও পা শক্ত করে বেঁধে রাখা হয়। কপাল ও দাঁত বরাবরও কাপড় দিয়ে বেঁধে রাখে হত্যাকারীরা। সেই ছবিই পেয়েছে যমুনা নিউজ।

জিহাদের স্বীকারোক্তিতে আরও জানা যায়, ফ্ল্যাটটিতে বসার ঘরে আনারকে স্বাগত জানান সিলাস্তি। পরে আসে জিহাদ। তখন সিলাস্তিকে নিচের ফ্লাটে যেতে বলা হয়।

ভিডিওতে দেখা যায়, ট্রিপ্লেক্স ফ্ল্যাটটির বসার ঘর থেকে পুলিশ জিহাদকে নিয়ে নিচে নামার পর সে দেখায় কোথায় বালিশ চাপা দিয়ে আনারকে হত্যা করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১২ মে চিকিৎসার জন্য কলকাতায় যান আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার। পরে তার খোঁজ পাওয়া না গেলে ১৮ মে ভারতে একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন এমপি আনারের পরিচিত ও ভারতের বরানগরের বাসিন্দা গোপাল বিশ্বাস। এরপর এমপি আনারের খোঁজে তল্লাশি শুরু করে কলকাতা পুলিশ। কলকাতার একটি ফ্ল্যাটে এমপি আনারকে হত্যা করা হয়েছে বলে গত ২২ মে জানায় ভারতীয় পুলিশ। তারপর থেকে বেরিয়ে আসছে নানা তথ্য।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা