Search
Close this search box.

চট্টগ্রামে পুজোমন্ডপে চলছে দুর্গোৎসবের প্রস্তুতি

শেয়ার করুন

Facebook
X
Skype
WhatsApp
OK
Digg
LinkedIn
Pinterest
Email
Print
puja-pic-02
মন্ডপে মন্ডপে চলছে সাজ সজ্জার কাজ।

পূজোর আর ক’টা দিন বাকি। মর্তে মাকে বরণ করে নিতে ইতিমধ্যে প্রস্তুতি শুরু করেছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। দিন যেন ঘনিয়েই আসছে। মন্ডপে মন্ডপে চলছে সাজ সজ্জার কাজ।

এবার মা আসছেন ঘোড়ায় করে ঘূর্ণিবেগে। যাবেনও তিনি ঘোড়ায় চড়ে। ফল তবে ছত্রভঙ্গস্তুরঙ্গমে। ফল যাই হোক, সকল আসুরিক শক্তির বিনাশ ঘটিয়ে শান্তি আনবেন মা। অমিয় সুধা বিলিয়ে তিনি এ ধরাকে করবেন শুদ্ধ- এমনটাই জানালেন সনাতনী নেতারা।

সারাদেশের ন্যায় দূর্গাপূজার উদ্ভবস্থল চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার পূজা মন্ডপগুলোতেও আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে মহাসমারোহে। পূজার বোধন থেকে দশমীদিন পর্যন্ত নানা আয়োজনের পরিকল্পনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন আয়োজকরা।

আয়োজকরা জানান, এটা শুধু পূজোর মধ্যে সীমিত থাকবে না এটা বাঙালি সংস্কৃতির অংশ, সার্বজনীন উৎসব। তাই আয়োজনেও থাকে নিত্যনতুন ভাবনা।

puja-pic-03
পুজোমন্ডপ গুলোতে চলছে দুর্গোৎসবের প্রস্তুতি।

উপজেলার দক্ষিণ সারোয়াতলীর ৬৭বছরের ভবানী ভবন মাতৃমন্দিরে প্রতিবছরের ন্যায় নানা আয়োজন রয়েছে। এ উৎসবে লোক দেখানো চাকচিক্যকে প্রাধান্য না দিয়ে দেশীয় কৃষ্টি ও সংস্কৃতিচর্চার লক্ষ্যে আয়োজন করে সামাজিক নাটকের। এবার নবমীর রাতে বিমান দাশগুপ্ত পিন্টু ও অরবিন্দ আইচ’র পরিচালনায় অশ্রুঝরা সামাজিক নাটক পরিবেশন করবে ভবানীভবন সৌখিন নাট্য সম্প্রদায়। এর উদ্বোধন করবেন স্থানীয় সাংসদ মঈন উদ্দিন খান বাদল।

এছাড়া দশমী দিনে বিজয়া সম্মেলন, রাতে সঙ্গীত ও নৃত্যানুষ্ঠান থাকছে বলে জানান ভবানী ভবন মাতৃমন্দির পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপেন দাশগুপ্ত।

puja-pic-04
শিল্পী’র হাতের ছোঁয়া প্রতিমা তৈরী।

বিশাল বাজেটের পূজা মন্ডপ ও মূল প্রতিমাসহ শতাধিক প্রতিমা তৈরি করছে জ্যৈষ্ঠপুরা বীণাপানি সংঘ। নগরীর রাধাশ্যাম পালের ছেলে রতন পাল কর্মী নিয়ে প্রতিমায় তুলির আঁচর বুলিয়ে চলেছেন একের পর এক। ফুসরত নেই কথা বলার। আয়োজক কমিটির প্রবীর চৌধুরী জানান, এবারের পূজোয় ২৫লক্ষ টাকার বাজেটে এ আয়োজন হতে চলেছে। প্রায় এককিলোমিটার এলাকা জুড়ে লাইটিংসহ প্রতিমা বসানো হবে। পাহাড় চূড়ায় সাপের আচ্ছাদনে মেঘ ও বৃষ্টি মিতালি দিয়ে সাজানো হবে মূল মন্ডপ। এতে বিজলি চমকানো পাশাপাশি বৃষ্টি ঝরবে আধুনিক লাইটিংয়ের মাধ্যমে। ১১২টি প্রতিমার সাজসজ্জা চলছে।

একইতালে পূর্ব শাকপুরা চট্টল সুহৃদ সম্মিলনী’র এবারের ৭১তম আয়োজনে রয়েছে প্রতিমা প্রদর্শনী। মূূল প্রতিমার পাশাপাশি ৪১টি অতিরিক্ত প্রতিমা দিয়েই হবে এ আয়োজন। মনিপুরী মন্দিরের আদলে সাজানোর কাজ চলছে মন্ডপ। এছাড়া পবেশদ্বারসহ নানা আয়োজনে ১মাসের বেশি সময় ধরে কাজ চলছে বলে জানান আয়োজক কমিটির রাজু দে। তিনি জানান ঢাকা বিক্রমপুরের মৃৎশিল্পী বাসুদেব পাল প্রতিমা তৈরি কাজ শেষ করে ফেলেছেন। কাঁচা মাটি শুকোলেই রঙ দেয়ার কাজ শুরু করবেন দু’এক দিনের মধ্যেই।

01
দেবীর আরাধনার প্রস্তুতি।

উপজেলার সার্বজনীন পূজা মন্ডপগুলোতে ব্যাপক আয়োজন চললেও পিছিয়ে নেই ব্যক্তিগত পূজো মন্ডপগুলো। শাকপুরার সাবেক চেয়ারম্যান পুলিন বিহারী চৌধুরী বাড়ির পূজো। ঐতিহ্যবাহী এ পরিবার প্রতি বছরের ন্যায় মাতৃ আরাধনার প্রস্তুতি নিয়েছেন। পরিবারের ঐতিহ্য ধরে রাখতে বংশপম্পরায় বছরের পর বছর এ পূজোর আয়োজন বলে জানালেন প্রয়াত পুলিন বিহারীর ছেলে সাধন চৌধুরী ও বিকাশ চৌধুরী।

আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর দূর্গাপূজার উদ্ভবস্থল চন্ডীতীর্থ মেধস আশ্রমে মহালয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হবে দেবীর আরাধনা। এ উপলক্ষে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে বোয়ালখালী পূজা উদযাপন পরিষদ।

এছাড়া খরণদ্বীপ সার্বজনীন তাঁতঘর হরি মন্দির, পূর্ব গোমদন্ডী লোকনাথ মন্দির, জগদীশ্বরী কালি বাড়ি, কধুরখীল দূর্গা বাড়ি, মিলন মন্দির, কানুনগোপাড়া নবারুন সংঘ, ধোরলা মুক্তি সংঘসহ ১১০টি পূজা মন্ডপে একযোগে এ উৎসব উদযাপিত হবে। তৎমধ্যে ৮২টি সার্বজননীন ও ২৮টি ব্যক্তিগত পূজো মন্ডপ রয়েছে বলে জানিয়েছেন বোয়ালখালী পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লিটন শীল।

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি নন কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা। তাদের প্ল্যাটফর্ম বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই)

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে বসার বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক বার্তার পর বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেছেন, গুলি আর আলোচনা

জাতীয়

১৮ জুলা ২০২৪

কোটা সংস্কারপন্থিদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। এরইমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সঙ্গে চলছে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। তারই মধ্যে ধানমনণ্ডির রাপা